সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১৯, ২০০৭

অক্ষম রাষ্ট্রের হঠাৎ শুদ্ধি এবং দেশ-স্বপ্ন

হ্যাঁ, উপরের এই ছবিটা বাঙলাদেশ এর, যে বাঙলাদেশ নিয়ে আপনি আমি -আমরা হেতুক-অহেতুক স্বতঃস্ফূর্ত স্বপ্ন বুনি, সময়ে-অসময়ে আবেগে, ক্ষোভে কিংবা হতাশায় আক্রান্ত হই ।
যে বাঙলাদেশে অর্ধ শতাব্দী আগে আপনার পূর্বপ্রজন্ম বর্ণমালা র সম্ভ্রম রক্ষার জন্যে বিক্ষোভে রক্ত আর অশ্রুর ফোঁটা এক করে ফেলেছিল, আপনি আগামীকাল ২১শে ফেব্রুয়ারি সেই বেদনায় টলমল হবেন, লাল শিমুল অথবা রঙ্গনে র শোকে আপ্লুত হবেন ।

টলমল চোখে আপনার-আমার বায়ান্নো-স্মরণ এমন এক সময়ে, যখন রক্ত আর অশ্রু মাখানো শোকাকুল বাঙলাদেশ নিয়ে হতাশ আমরা দেখছি, ভোট দিয়ে ক্ষমতায় পাঠানো প্রিয় জনপ্রতিনিধিরা টিন আর গম চুরির অভিযোগে কিংবা কোন কারণ ছাড়াই জরুরি ক্ষমতা অধ্যাদেশ নামের একটি বিতর্কিত আইনের জোরে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে ।

আমাদের প্রতিনিধি, অথচ তাঁরা স্বাভাবিক অবস্থায় নেই বলে আমরা আশান্বিত হচ্ছি। এ এক এমন সময় যখন রাষ্ট্রীয় সেনাবাহিনী, ( যাদের আমার মতো অনেকেই সন্দেহের চোখে দেখেন ) - তাদের দেশশুদ্ধি র হঠাৎ অভিযান দেখে আমরা হাততালি দিচ্ছি।

যে দেশ নিয়ে আপনি-আমি গত দুইমাস আগে কোন আলোই দেখিনি - রাজনীতির সাথে জড়িত মানুষগুলো আমাদের জন্যে যখন বেদনা আর হতাশা ছাড়া আর কিছুই নিয়ে আসতে পারেননি, ক্ষমতার লোভে যারা ঔদ্ধত্যের শেষ মাত্রায় পৌঁছে গিয়েছিলেন, সেই সময় ঈশ্বরের কোন্ ইচ্ছেয় সিনারিও গুলো পাল্টে গেলো - কোন্ যাদুর ছোঁয়ায় সুরের স্বেচ্ছাচারে পটু রাজনৈতিক মানুষগুলো ঠিক সুরে গান গাওয়ার চেষ্টা শুরু করলেন ?

আমি জানি না ।
আর জানতেও ইচ্ছে করছে না - কারণ, যা ঘটেছে - তা বোধহয় খুব খারাপ হয়নি ।
-----------------------------------------

গত একমাসে আমরা যা চাইলাম, তাই হলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রে - দেশকে যারা নিজেদের সম্পত্তি ভেবে ভাগ-বাটোয়ারায় ব্যস্ত ছিলেন - তাদের পতন, ট্র্যাকচ্যুত অক্ষম এক রাষ্ট্রের ট্র্যাকে ওঠার চেষ্টা, গত এক দশকে রাষ্ট্র শাসনে জমে ওঠা আবজর্না পরিষ্কার করার প্রয়াস, ক্ষুদ্র ঋণের উপর ভর করে নোবেল বিজয় করে ফেলা অর্থনীতির অধ্যাপকের আম্রিকান স্টাইলে প্রিয় নাগরিক, আপনাকে বলছি - টাইপের আহবান - কেমন যেন সাজানো গোছানো সব পট ।

অতিরিক্ত সন্দেহপ্রবণ আপনি, কোন অদৃশ্য দাতা প্রভু অথবা প্রভুগোষ্ঠির অদৃশ্য সুতো কল্পনা করতে পারেন - হ্যাঁ, আমিও করিনা যে তা নয় ।

তবুও আমার কেন যেন স্বপ্ন দেখতে ইচ্ছে করছে ।
আমরা বারবার স্বপ্ন বুনি - ঘাস আর নদীর গন্ধ মাখানো স্বপ্ন । নামপরিচয় জানা নেই মুক্তিযোদ্ধারা যে ছাপ্পান্নো হাজার বর্গমাইল বিচরণ করে বেরিয়েছে শত্রুর খোঁজে, তার পুরোটা জুড়ে ঘাস, নদী আর ফুল ।
দেশ নিয়ে আমাদের সব ক্ষুদ্র চাওয়া পদদলিত হয় বারবার - তবুও আমরা কি কখনো থেমেছি ?

উপরের ছবিটার মতো হাস্যোজ্জ্বল হবে বাঙলাদেশের সব মুখ, এই নষ্ট রাজনীতি, পুঁজি আর পেশীর দাপট অথবা আকাশছোঁয়া সব অশ্লীল অট্টালিকা আর ছাতার মতো গজিয়ে ওঠা কসমোপলিট্যান মেগাসিটি ছাপিয়ে আলো ছড়াবে এই মানুষগুলোর হাসিমুখ - সেই দিনের প্রত্যাশায় থাকি ।

------
"বাঙলাদেশ" বানানটা ইচ্ছে করে ব্যবহার করা, ত্রুটি নয়
ছবি : বিবিসি , ছবির কপিরাইট তথ্য : এখানে

২টি মন্তব্য:

ইফতেখার বলেছেন...

ছবি এবং লিখা দুটোই হৃদয় ছুঁয়ে যায়।

ওডিসিউস বলেছেন...

কৃতজ্ঞতা, হযু দা
এতদূর ব্লগস্পটে এসে কমেন্ট করে যাবার জন্যে ।

--
অনুভূতিশূন্য কেউ একজন